“কিছু কিছু মানুষ শুধু ভালোবাসার জন্য ‘ প্রেমিক ‘ খোঁজে না, কেউ কেউ ‘ বাবার ‘ ভালোবাসাও খোঁজে”

কিছু কিছু মানুষ শুধু ভালোবাসার জন্য ‘ প্রেমিক ‘ খোঁজে না, কেউ কেউ ‘ বাবার ‘ ভালোবাসাও খোঁজে

কিছু কিছু মানুষ শুধু ভালোবাসার জন্য ' প্রেমিক ' খোঁজে না, কেউ কেউ ' বাবার ' ভালোবাসাও খোঁজে

সব মেয়ের কাছে তার বাবা হিরো হয় না, জীবনের সব থেকে খারাপ অধ্যায় ও হয়। যেই অধ্যায়টা তাড়াতাড়ি শেষ করে দিতে চায় কিছু কিছু জন। অন্য কারুর মধ্যে খুঁজতে থাকে বাবার স্নেহ নিঃসার্থ ভালোবাসা ।

অনেক কে বলতে শুনেছি তারা নাকি তাদের বাবাকে ছাড়া থাকতে পারবে না, বাবা তাদের প্রিয় বন্ধু, সব কথা ভাগ করে নেয়। হয়তো সব বাবা খারাপ হয় না “সবার কপাল খারাপ হয় না”। টাকা উপার্জন করাটাই সংসারের শেষ কাজ ,হয়তো তাদের মতে।

সংসারের মানুষ গুলোর মন আছে দুর্বলতা আছে সেটা ভাবে না কোনো দিন। চারটে খারাপ কথার জায়গায় ভালোবেসে বুঝিয়ে কথা বললে যে মানুষ গুলো তার সব টুকু উজাড় করে দিতে পারে তাদের সাথে সার্থপর এর মত আচরণ দিনের শেষে অ প্রাসঙ্গিক। একটু ভালো করে ব্যাবহার প্রাপ্য সব মানুষের সেটা বোঝে না।

কোনো দিন বদলায় না থাকে নিজের জেদ – রাগ – আঘাত দিয়ে যায় চারপাশের মানুষ দের। তবু তারা মুখ বুজে সহ্য করে, আর যাই হোক নিজের বাবা/স্বামী। বেঁচে থাকার অবলম্বন নেই যাদের তাদের এভাবে পার করতে হয় কিছুটা জীবন।

বড্ডো ঠুনকো হয়ে গেছে আজকাল সম্পর্ক গুলো। পয়সার কাছে হেরে যায় আজ মানবিকতা । Adjustment অনেক কিছুকে হারিয়ে দিতে পারে। ভালোবাসার নির্দিষ্ট কোনো সংগা হয় না, সব ভালোবাসা মুখে প্রকাশ করা যায় না। আর অপ্রকাশিত ভালোবাসার খবর কেউ নেয়না, সঙ্গোপনে জমে থাকে। অনেক কথা বলার থাকে বলা হয় না কাউকে ওরা মনের গোপন চেনে না।

“কিছু কিছু মানুষ শুধু ভালোবাসার জন্য ‘ প্রেমিক ‘ খোঁজে না, কেউ কেউ ‘ বাবার ‘ ভালোবাসাও খোঁজে” ।I

Leave a Reply

Related Post

” ফিরে পাওয়ার সময় ফেরেনি, বসন্ত ফিরেছে বহুবার! “” ফিরে পাওয়ার সময় ফেরেনি, বসন্ত ফিরেছে বহুবার! “

” ফিরে পাওয়ার সময় ফেরেনি, বসন্ত ফিরেছে বহুবার! “ সারা জীবন ধরে মায়ের দোষ,শুনে আসা একলা মেয়েটারও একটা আত্মকথা থাকতে পারে সেটা বোঝে না অনেকেই। উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা বাবার মুখের

ভালোবেসে তিস্তা নাম দিয়েছিলাম।

ভালোবেসে তিস্তা নাম দিয়েছিলাম।ভালোবেসে তিস্তা নাম দিয়েছিলাম।

ভালোবেসে তিস্তা নাম দিয়েছিলাম। “বড্ড মন খারাপ ছিল আবেশের… চা এর দোকান থেকে চুপচাপ বাড়ি ফিরে চলে এলো, তারপর আর কারো সাথে কথা বলেনি সেদিন। কি জানি কি হয়েছিল! সেই

কিছু ক্ষন পর রিপ্লাই এলো " eyeliner "

কিছু ক্ষন পর রিপ্লাই এলো ” eyeliner “কিছু ক্ষন পর রিপ্লাই এলো ” eyeliner “

কিছু ক্ষন পর রিপ্লাই এলো  “eyeliner” তখন রাত ২:৪৫ ড্রেসিং টেবিলের প্ল্যানটা সবে শেষ হলো। তার সাথে কথা বলতে বলতে কিছুক্ষন চুপ করে গেছি পরের আঁকা শুরু করতে। রিপ্লাইটা পেতে

%d bloggers like this: